সাতসকালে ভয়াবহ বিস্ফোরণে বেলেঘাটায় উড়ে গেল একটি ক্লাবের ছাদ        রেলকর্মীদের ট্রেনে আমজনতার যাত্রা নিয়ে সোনারপুর স্টেশনে ধুন্ধুমার কান্ড        অবশেষে মাদক কাণ্ডে জামিন পেলেন অভিনেত্রী রিয়া চক্রবর্তী        ডায়মন্ড হারবার আসার পথে ভাঙচুর করা হল বিজেপি নেতা শমীক ভট্টাচার্যের গাড়ি        করোনায় আক্রান্ত হলেন সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়        মণীশ শুক্লার মরদেহ নিয়ে রাজভবনের পথে বিজেপি        গুলিবিদ্ধ হয়ে মৃত্যু হল বিজেপি নেতা মণীশ শুক্লার, উত্তপ্ত টিটাগড়        বিস্ফোরক ভর্তি গাড়ি আটক বীরভূমে, গ্রেপ্তার গাড়ির চালক        মস্তিস্কখেকো অ্যামিবা, মর্মান্তিক মৃত্যু হল এক শিশুর        আর্মেনিয়া ও আজারবাইজানের মধ্যে শুরু হল যুদ্ধ, নিহত প্রায় ১৬        সাতসকালে ভয়াবহ বিস্ফোরণে বেলেঘাটায় উড়ে গেল একটি ক্লাবের ছাদ
রেলকর্মীদের ট্রেনে আমজনতার যাত্রা নিয়ে সোনারপুর স্টেশনে ধুন্ধুমার কান্ড
অবশেষে মাদক কাণ্ডে জামিন পেলেন অভিনেত্রী রিয়া চক্রবর্তী
ডায়মন্ড হারবার আসার পথে ভাঙচুর করা হল বিজেপি নেতা শমীক ভট্টাচার্যের গাড়ি
করোনায় আক্রান্ত হলেন সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়
মণীশ শুক্লার মরদেহ নিয়ে রাজভবনের পথে বিজেপি
গুলিবিদ্ধ হয়ে মৃত্যু হল বিজেপি নেতা মণীশ শুক্লার, উত্তপ্ত টিটাগড়
বিস্ফোরক ভর্তি গাড়ি আটক বীরভূমে, গ্রেপ্তার গাড়ির চালক
মস্তিস্কখেকো অ্যামিবা, মর্মান্তিক মৃত্যু হল এক শিশুর
আর্মেনিয়া ও আজারবাইজানের মধ্যে শুরু হল যুদ্ধ, নিহত প্রায় ১৬

মণীশ শুক্লার মরদেহ নিয়ে রাজভবনের পথে বিজেপি

ব্রেকিং বেঙ্গল ওয়েব ডেস্কঃ টিটাগড়ে খুন হওয়া বিজেপি নেতা মণীশ শুক্লর মরদেহ নিয়ে বেনজির রাজনীতিতে নেমে পড়লেন বিজেপি নেতৃত্ব। সোমবার বিকেলে এনআরএস মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মণীশের মরদেহের ময়নাতদন্ত হয়েছে। তার পরেই মরদেহ নিয়ে এস এন ব্যানার্জি রোড ধরে রাজভবনের উদ্দেশে এগোতে শুরু করেছেন বিজেপি নেতারা।রাজনৈতিক কর্মীর শব নিয়ে এর আগেও রাজনীতি দেখেছে কলকাতা। ছোট আঙারিয়ায় মৃত তৃণমূল কর্মীদের মরদেহ কলকাতায় নিয়ে এসেছিল তৃণমূল। কলকাতা মেডিকেল কলেজের মর্গে রাখা হয়েছিল সেই দেহ। পরবর্তী কালে ২০১৩ সালে পঞ্চায়েত ভোটের সময় তৃণমূল রাজ্য নির্বাচন কমিশনার মীরা পাণ্ডের উদ্দেশে হুঁশিয়ারি দিয়ে জানিয়েছিল, গরমের কারণে কোনও ভোটারের মৃত্যু হলে সেই মৃতদেহ নিয়ে তাঁরা কমিশনের সামনে ধর্ণা দেবেন। কিন্তু রাজনৈতিক কর্মীর মরদেহ রাজভবনে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা বেনজির। হয়তো এই প্রথম।রাজনৈতিক কর্মীর শব নিয়ে এর আগেও রাজনীতি দেখেছে কলকাতা। ছোট আঙারিয়ায় মৃত তৃণমূল কর্মীদের মরদেহ কলকাতায় নিয়ে এসেছিল তৃণমূল। কলকাতা মেডিকেল কলেজের মর্গে রাখা হয়েছিল সেই দেহ। পরবর্তী কালে ২০১৩ সালে পঞ্চায়েত ভোটের সময় তৃণমূল রাজ্য নির্বাচন কমিশনার মীরা পাণ্ডের উদ্দেশে হুঁশিয়ারি দিয়ে জানিয়েছিল, গরমের কারণে কোনও ভোটারের মৃত্যু হলে সেই মৃতদেহ নিয়ে তাঁরা কমিশনের সামনে ধর্ণা দেবেন। কিন্তু রাজনৈতিক কর্মীর মরদেহ রাজভবনে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা বেনজির। হয়তো এই প্রথম।গতকাল রাত ৮ টা নাগাদ টিটাগড়ে দুষ্কৃতীদের গুলিতে খুন হন বিজেপি নেতা মণীশ শুক্ল। তাঁকে হাসপাতালে নিয়ে গেলে মৃত বলে ঘোষণা করা হয়। তার পর তাঁর ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয় এনআরএস মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। ময়নাতদন্তে কেন দেরি হচ্ছে, পুলিশ কেন মরদেহ রিলিজ করছে না সেই সব অভিযোগ নিয়ে সোমবার দুপুরেই রাজভবনে গিয়ে রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়ের কাছে নালিশ করেন বিজেপির সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক কৈলাস বিজয়বর্গীয়।মণীশ খুনের ঘটনায় রাজ্যপালও আন্দোলিত। এ ঘটনা নিয়ে জানতে চেয়ে গতকাল রাতেই তিনি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে টেক্সট মেসেজ করেছিলেন। সেই সঙ্গে রাজ্য পুলিশের ডিজি বীরেন্দ্র ও স্বরাষ্ট্র সচিব হরিকৃষ্ণ দ্বিবেদীকে তলব করেছিলেন রাজভবনে।শাসক দলের অনেকের মতে, রাজ্যপালের ইন্ধনেই এ সব করছে বিজেপি। রাজভবনকে কার্যত বিজেপির পার্টি অফিস বানিয়ে দিয়েছেন রাজ্যপাল।শাসক দলের অনেকের মতে, রাজ্যপালের ইন্ধনেই এ সব করছে বিজেপি। রাজভবনকে কার্যত বিজেপির পার্টি অফিস বানিয়ে দিয়েছেন রাজ্যপাল।এখনও পর্যন্ত যা খবর তাতে কলকাতা পুলিশের তরফে বিজেপি নেতাদের বলা হয়েছে যে মরদেহ নিয়ে রাজভবনে যাওয়ার অনুমতি আপনাদের নেই। কিন্তু তাতে কর্ণপাত করেননি বিজেপি নেতারা। এস এন ব্যানার্জি রোড ধরে তাঁরা এখনও এগোচ্ছেন।
শেষ পর্যন্ত কী হতে চলেছে তা এই প্রতিবেদনে ধারাবাহিক ভাবে আপডেট করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *