সাতসকালে ভয়াবহ বিস্ফোরণে বেলেঘাটায় উড়ে গেল একটি ক্লাবের ছাদ        রেলকর্মীদের ট্রেনে আমজনতার যাত্রা নিয়ে সোনারপুর স্টেশনে ধুন্ধুমার কান্ড        অবশেষে মাদক কাণ্ডে জামিন পেলেন অভিনেত্রী রিয়া চক্রবর্তী        ডায়মন্ড হারবার আসার পথে ভাঙচুর করা হল বিজেপি নেতা শমীক ভট্টাচার্যের গাড়ি        করোনায় আক্রান্ত হলেন সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়        মণীশ শুক্লার মরদেহ নিয়ে রাজভবনের পথে বিজেপি        গুলিবিদ্ধ হয়ে মৃত্যু হল বিজেপি নেতা মণীশ শুক্লার, উত্তপ্ত টিটাগড়        বিস্ফোরক ভর্তি গাড়ি আটক বীরভূমে, গ্রেপ্তার গাড়ির চালক        মস্তিস্কখেকো অ্যামিবা, মর্মান্তিক মৃত্যু হল এক শিশুর        আর্মেনিয়া ও আজারবাইজানের মধ্যে শুরু হল যুদ্ধ, নিহত প্রায় ১৬        সাতসকালে ভয়াবহ বিস্ফোরণে বেলেঘাটায় উড়ে গেল একটি ক্লাবের ছাদ
রেলকর্মীদের ট্রেনে আমজনতার যাত্রা নিয়ে সোনারপুর স্টেশনে ধুন্ধুমার কান্ড
অবশেষে মাদক কাণ্ডে জামিন পেলেন অভিনেত্রী রিয়া চক্রবর্তী
ডায়মন্ড হারবার আসার পথে ভাঙচুর করা হল বিজেপি নেতা শমীক ভট্টাচার্যের গাড়ি
করোনায় আক্রান্ত হলেন সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়
মণীশ শুক্লার মরদেহ নিয়ে রাজভবনের পথে বিজেপি
গুলিবিদ্ধ হয়ে মৃত্যু হল বিজেপি নেতা মণীশ শুক্লার, উত্তপ্ত টিটাগড়
বিস্ফোরক ভর্তি গাড়ি আটক বীরভূমে, গ্রেপ্তার গাড়ির চালক
মস্তিস্কখেকো অ্যামিবা, মর্মান্তিক মৃত্যু হল এক শিশুর
আর্মেনিয়া ও আজারবাইজানের মধ্যে শুরু হল যুদ্ধ, নিহত প্রায় ১৬

মোহনবাগানের হাতে এল আইলিগের ট্রফি,উচ্ছ্বাস সমর্থকদের মধ্যে

ব্রেকিং বেঙ্গল ওয়েব ডেস্কঃ রবিবার ছুটির দিনে কলকাতার দখল নিল সবুজ-মেরুন জনতা। ক্লাবের আইলিগ জয়ের আনন্দে ভাগীদার হতে তিলোত্তমাকে সবুজ-মেরুনে রাঙিয়ে দিলেন তাঁরা। প্রতীক্ষার অবসান। আট মাস আগে ট্রফি জিতলেও করোনা কালে সেই ট্রফি হাতে আসতে দেরি হচ্ছিল। অবশেষে রবিবার বাইপাসের ধারের এক পাঁচতারা হোটেলে আইলিগের ট্রফি দেওয়া হল মোহনবাগানকে। এই উপলক্ষ্যে সকাল থেকেই উচ্ছ্বাস দেখা গিয়েছে মোহনবাগান সমর্থকদের মধ্যে। সবুজ মেরুন জার্সিতে ছয়লাপ বাইপাস থেকে শুরু করে শহরের একাধিক জায়গা।এদিন আইলিগের সিইও সুনন্দ ধর ও রাজ্যের ক্রীড়ামন্ত্রী অরূপ বিশ্বাসের উপস্থিতিতে আইলিগ ট্রফি তুলে দেওয়া হল বাগান কর্তাদের হাতে। টুটু বসু, সৃঞ্জয় বসু, দেবাশিস দত্ত-সহ বাগানের সব কর্তা হাজির ছিলেন এদিন। দেখা গেল বাগানের আইলিগ জয়ী একাধিক ফুটবলারকে। সবাই মিলে ভাগ করে নিলেন আনন্দ।এদিকে এই ট্রফি জয় উপলক্ষ্যে শহরের রাস্তা ভরিয়ে দিয়েছেন সবুজ-মেরুন সমর্থকরা। দলের জার্সি গায়ে রাস্তায় নেমেছেন তাঁরা। উড়ছে আবির। কেউ বাইকে, তো অনেকে আবার ম্যাটাডোরে চেপে এই উৎসবে সামিল হয়েছেন। শুধু কলকাতা নয়, আশাপাশের একাধিক জেলা থেকে মোহনবাগান সমর্থকরা পৌঁছে গেছেন আনন্দের ভাগীদার হতে। গান বাজছে ‘আমাদের সূর্য মেরুন…’ সেই সঙ্গে সবার মুখে ‘জয় মোহনবাগান’ স্লোগান।যাঁদের হাত ধরে ট্রফি এসেছিল, তাঁরা থাকতে পারবেন না। কেউ এ মরসুমে থাকলেও দলের সঙ্গে গোয়ায় রয়েছেন। আর অধিকাংশই দল ছেড়ে এবার অন্য শহরে চলে গিয়েছেন। সবুজ মেরুনের যিনি হেডস্যার ছিলেন, সেই কিবু ভিকুনা গোয়ায় রয়েছেন কেরালা ব্লাস্টার্সের কোচ হয়ে। তিনি সমর্থকদের কাছে অনুরোধ করেছেন, উৎসবের ছবি যেন তাঁকে পাঠিয়ে দেওয়া হয় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম মারফৎ।সল্টলেকের হোটেল থেকে খোলা জিপে একটি কাঁচের সুদৃশ্য বাক্সে সেই ট্রফি নিয়ে শুরু হবে মিছিল। শহরের চারটি জায়গা থেকে ওড়ানো হবে বিশেষ বেলুন। সেই চারটি জায়গা হল হাওড়া, ধর্মতলা, দেশপ্রিয় পার্ক এবং হেদুয়া-বিবেকানন্দ রোড। হোটেল থেকে বেরিয়ে কাদাপাড়া বাইপাস, দত্তাবাদ বাইপাস, বেঙ্গল কেমিক্যাল বাইপাস ধরে মিছিল যাবে উল্টোডাঙ্গা হাডকো মোড়ে।তার পরে সমর্থকদের ওই মিছিল যাবে অরবিন্দ সেতু ধরে খান্না, এপিসি রোড ধরে ফড়িয়াপুকুর, শ্যামবাজার পাঁচ মাথার মোড়ে। পরে হাতিবাগান, হেদুয়া, বিবেকানন্দ রোড, গিরীশ পার্ক, সিআর অ্যাভিনিউ, ধর্মতলা হয়ে পৌঁছবে মোহনবাগান ক্লাবে।শনিবার থেকেই সবুজ মেরুন তাঁবু আলো ঝলমল করছে। পুরো মাঠে আলপনা দিয়ে আঁকা হয়েছে সুদৃশ্য আই লিগ ট্রফি ও পালতোলা নৌকা। সমর্থকদের উচ্ছ্বাস শুধুমাত্র বাঁধভাঙা হওয়ার অপেক্ষা। আর সেটা শুরু হয়ে গিয়েছে রবিবার সকাল থেকেই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *